কোরআন কি শুধু চ্যালেঞ্জ দিয়েই খালাস?

FirstCopyOfQuran_23

প্রশ্ন: কোরআনের মত কোনো বই নাকি লেখা সম্ভব না? কোরআন তো চ্যালেন্জ দিয়াই খালাস, এই চ্যালেঞ্জ জাস্টিফাই করবে কে? রবীন্দ্রনাথ এর কবিতাগুলো কি কম সুন্দর?

উত্তর: কোরআন চ্যালেঞ্জ দিয়ে খালাস এই কারণে যে যার ঘটে বিন্দু পরিমানও বুদ্ধি আছে তার নিজেরই বুঝা উচিত কিভাবে একটা মাস্টারপিস লেখার সাথে অন্য লেখার তুলনা করতে হবে। আমি যদি আপনাকে বলি, আপনি পারলে ‘সোনার তরী’র মত একটা কবিতা লিখে দেখান তখন আপনাকে কিন্তু ঐ কবিতা বাংলাতেই লিখতে হবে। আপনি, ইংরেজীতে কবিতা লিখে ‘সোনার তরী’ এর সাথে তুলনা করলে ব্যাপারটা ঠিক হবে না, যে কারণে আপেলের সাথে কমলার তুলনা করা যায় না । কাজেই, কেউ কোরআনের চ্যালেঞ্জ নিতে চাইলে তাকে আরবীতেই লিখতে হবে।

আর এই তুলনা করার মতো বুদ্ধি যার আছে সে অনায়াসে বুঝতে পারবে যে কোরআনের সমতুল্য কোন বই এই পৃথিবীতে নাই । কোরআনের মিরাকলের শেষ নাই  – কোরআনের বিজ্ঞান সংক্রান্ত বিভিন্ন আয়াত, কোরআনের বিভিন্ন ভবিষ্যৎবানী, কোরআনের শব্দবিন্যাস, আরবী ভাষার উপর কোরআনের প্রভাব, কোরআন যেভাবে সংরক্ষিত হয়ে আসছে – এই প্রত্যেকটা ব্যাপারই এত ইউনিক যে পৃথিবীর আরো কোন বইতে এই বৈশিষ্ট্যগুলো নাই।

আমি অত কঠিন কঠিন চ্যালেঞ্জে যাবো না, খুব সহজ একটা চ্যালঞ্জে যাবো:

আয়াতের দিক থেকে কোরআনের অন্যতম ছোট সূরা হলো সূরা ইখলাস। বর্তমান পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষ এই সূরাটি মুখস্থ করেছে, প্রত্যেকদিন কয়েক কোটি বার এটি পড়া হচ্ছে – নামাজের ভিতরে পড়া হচ্ছে, বাইরে পড়া হচ্ছে, আপনি যখন এই লেখাটি পড়ছেন তখনো অগণিত মানুষ (হয়তো বা কয়েক লক্ষ মানুষ!) এই মূহুর্তে এই সূরাটি পড়ছে, যার বয়স ৯ সে যেমন পড়ছে, যার বয়স ৯০ সে-ও পড়ছে। কেবল পড়ছে বললেও আন্ডার এস্টিমেট করা হবে – এই মানুষগুলো একাগ্রতার সাথে পড়ছে, ভয়ের সাথে পড়ছে, পবিত্রতার সাথে পড়ছে।  এমনকি শুধু বর্তমান যুগেই নয়, যেই দিন ৪ বাক্যের এই সূরাটি পৃথিবী এসেছে, প্রায় ১৪০০ বছর আগের সেই দিন থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত অসংখ্য মানুষ এই সূরাটি পড়েছে, পড়ছে, মুখস্থ করেছে, করছে, ঠিক সেই উচ্চারণে যেই উচ্চারণে এটি প্রথমবার মানুষ শুনেছিলো – এখন আপনি পারলে এরকম চারটি লাইন অন্য কোনো বই থেকে এনে দেখান যেটা হাজার বছর ধরে মানুষ এত গুরুত্বের সাথে আমল করছে।  আগে এই চ্যালেঞ্জটা পাস করেন এর পর বাকী চ্যালেঞ্জগুলোতে আসা যাবে!

তারা কি বলে, সে (মুহাম্মদ(সা)) এ রচনা করেছে? বলো, ‘তবে তোমরা এর মতো এক সূরা আনো, আর যদি তোমরা সত্য কথা বলো তবে আল্লাহ্‌ ছাড়া অন্য যাকে পারো ডাকো’। – সূরা ইউনুস (১০:৩৮)  

One thought on “কোরআন কি শুধু চ্যালেঞ্জ দিয়েই খালাস?

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s